• Slim Tea – স্লিম চা

       “তোমরা সোনাপাতা ব্যবহার কর, এটা মৃত্যু ছাড়া সকল রেগের মহাঔষধ হিসেবে কাজ করে”।
    ২। স্লীম টি তে সেনোসাইড ও রেইন এনথ্রোন উপস্থিতি হজম প্রক্রিয়াকে সক্রিয় করে।
    ৩। পায়ু পথের ও অর্শের সমস্যা সমাধানে কার্যকরী।
    ৪। অ্যান্টি সেপটিক ও অ্যান্টি আলসারের কাজ করে।
    ৫। ক্ষুধামন্দা, বদহজম, জন্ডিস এবং এনেমিয়ার জন্য ‍বিশেষ উপকারী।
    ৬। কোলন ও স্তন ক্যান্সার প্রতিরোধ করে এবং ডায়াবেটিকস নিয়ন্ত্রন করে।
    ৭। রক্তের চর্বির পরিমাণ ব্যালেন্স করে তারুণ্যকে দীর্ঘস্থায়ী করে।

    ৳ 450
  • Diabetes Tea – ডায়াবেটিক চা

    • ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে
    • উচ্চরক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে কোলেস্টেরল কমায়
    • হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়
    • শরীরের ক্লান্তি দূর করে
    • এন্টি – অক্সিজেন সমৃদ্ধ হওয়ায় ত্বকের বলিরেখা রোধ করে
    • অকাল বার্ধক্য রোধ করে, শরীরের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে
    • কিডনি ও পেটের রোগ প্রতিরোধ করে.
    ৳ 450
  • Green Tea – গ্রীন চা

    (ক্যাফেইন এবং অক্সিডেন্ট প্রচুর পরিমাণে বিদ্যমান)।

    • অকালে বার্ধক্য রোধ করে শরীরকে সুস্থ্য ও ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে ত্বককে মসৃণ রাখে।
    • মেটাবলিসমের পরিমাণ বাড়িয়ে শরীরের চর্বি কমাতে সহায়তা করে।
    • রক্তের এলডিএল কমায় এবং এইচডিএল বাড়িয়ে সুস্থ রাখে তাই হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমায়।
    • কিডনি ও পেটের রোগ প্রতিরোধে সহায়ক এবং ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়্
    • এন্টি-অক্সিডেন্ট ভিটামিন সি থেকে ১০০ গুণ ও ভিটামিন ই থেকে ২৪ গুণ বেশি কাজ করে শরীরের কোষগুলোকে নষ্ট হওয়া থেকে রক্ষা করে।
    • দাঁতের ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করে দাঁত ক্ষয় রোধ করে সুস্থতা বৃদ্ধি করে।
    ৳ 430
  • Mint Tea – পুদিনা চা

    • কোলস্টেরল ও উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে এবং ক্লান্তি নিবারণ হয়।
    • মাথা, শরীর, পেটের ব্যাথা উপশম করে, শরীরের চামড়াকে টানটান করে সতেজ রাখে।
    • পলিফেনন, অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, ফ্লোরাইড থাকে দাঁতের ক্ষয়রোধ ও মাড়ির সমস্যা দূর করে।
    • মেন্থল শীতকালীন ঠান্ডাজনিত কফ-কাশি বের হওয়া ও এডিনো ভাইরাস বিস্তার রোধ করে।
    • মুখের স্বাদ বৃদ্ধি ও ত্বকের ব্রণ দূর করতে সহায়তা করে।
    • অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, ইনফ্লামেটরি ত্বককে শীতল করে চামড়ার চুলকানি ও নিঃশ্বাসের র্দূগন্ধ দূর করে।
    • অ্যান্টি এইজিং টক্সিন দূর করে, নারীদের ওভারিতে ক্যান্সার কোষগুলো ধ্বংস করে।
    • পুদিনা মেয়েদের রক্তশূন্যতা পূরণ করে।
    ৳ 400
  • Tulsi Juice – তুলসি জুস

    • কফ নিরাময়, কৃমি, বায়ুনাশক, হজমকারক ও শ্বাসযন্ত্রের সমস্যা নিরাময়ে কার্যকরী।
    • প্রস্রাবজনিত জ্বালা যন্ত্রনায় বিশেষ উপকার হয়।
    • ভিটামিন সি ও অ্যান্টি অক্সিডেন্ট নার্ভকে শান্ত করে শরীরের রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে।
    • ফাইটো নিউট্রিয়েন্টস ও এসেন্সিয়াল অয়েল তারুণ্য এবং স্মরণশক্তি দীর্ঘস্থায়ী করে।
    • ভাইরাস, ব্যাক্টেরিয়া ও ফাংগাস থেকে রক্ষা করে মাথা ও শরীর ব্যাথা কমায়।
    • ফাইটো কেমিক্যালস, অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এবং অর্গানিক কম্পাউন্ড ভাল কোলেস্টেরল বাড়ায়, খারাপ কোলেস্টেরল হ্রাস পায়।
    • অ্যালকোহলিক নির্যাস রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে বৃদ্ধি করে।
    • দাঁত ও হাঁড়ের ভিতরের ব্যাথা দূর করে এবং পুরুষের বীর্য বৃদ্ধি পায়।
    • বমি বমি ভাব দূর হয় এবং খাবারের রুচী বাড়ে।
    • এতে আছে নির্ভেজাল ইসবগুল যাকে বলা হয় গ্যাস্ট্রিকের যম। পুষ্টিবিজ্ঞানীরা পাকস্থলীকে গ্যাস্ট্রিক মুক্ত রাখার জন্য নিয়মিত ইসবগুল খাওয়ার পরামর্শ দেন।
    ৳ 500
  • Aloe Vera Juice – এ্যালোভেরা জুস

    • সুষম খাদ্যের পাশাপাশি নিয়মিত পান করলে কোষ্ঠকাঠিন্য এবং বুক জ্বালাপোড়া দূর হয়।
    • রক্তে সুগারের পরিমাণ ব্যালেন্স করে, ডায়াবেটিকস প্রতিরোধে সহায়তা করে।
    • এ্যালোভেরা জুস দাঁত ও মাড়ির ব্যথা উপশম করে ও দাঁতের ক্ষয় প্রতিরোধ করে।
    • অ্যান্টি ইনফ্লামেটরি উপাদান ইনফেকশন দূর করে ব্রণ হওয়ার প্রবণতা কমায়।
    • নিয়মিত পান করলে WBC গঠন করে, যা ভাইরাস প্রতিরোধক হিসেবে কাজ করে।
    • অন্ত্রের উপকারী ব্যাকটেরিয়া বৃদ্ধি করে প্রদাহ সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়া রোধ করে হজমশক্তি বাড়ায়।
    • কোলেস্টেরল মাত্রা কমিয়ে, দূষিত রক্ত দেহ থেকে বের করে রক্ত কণিকা বৃদ্ধি করে হৃদযন্ত্রকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।
    • ক্যালসিয়াম, সোডিয়াম, আয়রন, পটাশিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, জিঙ্ক, ফলিক অ্যাসিড, অ্যামিনো এসিড ও ভিটামিন এ, বি৬, বি২ ইত্যাদি প্রচুর পরিমাণে বিদ্যমান।
    • অ্যান্টি ফাঙ্গাস এবং অ্যান্টি মাইক্রোবিয়াল শরীরের টক্সিন দূর করে, মাংসপেশীর ব্যথা সন্তোষজনকভাবে কমিয়ে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।
    ৳ 600

Main Menu

Cart
  • No products in the cart.